ED সম্পূর্ণ তথ্য 1

ED সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য়:

আমরা প্রায়ই  ED এর সম্পর্কে বিভিন্ন কথা পত্রিকা ,টি ভি , ইউটিউব,ফেসবুক এর মতো অনেক জায়গায় দেখতে পাই।এখন আমরা ED সম্পর্কে সম্পূর্ণ বিষয়টি জানব।

ED সম্পূর্ণ নাম :

ED সম্পূর্ণ নাম হল  Directorate Of Enforcement ( ডিরেক্টরেট অফ এনফোর্সমেন্ট )।

বাংলা অর্থ বলতে পরি বলবৎ অধিদপ্তর।

ED উদ্দেশ্য :

ED সম্পূর্ণ তথ্য 2

ED পাচটি আইনকে বলবৎ করার জন্য গঠিত হয় ;

i) মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ,2002 (PMLA):

এটি একটি ফৌজদারী আইন যা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ করতে এবং অর্থ পাচার  থেকে প্রাপ্ত অর্থ বাজেয়াপ্ত করার জন্য এবং এর সাথে সম্পর্কিত বিষয়গুলি প্রণীত হয় ।সম্পত্তি আস্থায়ীভাবে সংযুক্তকরা ,অপ

রাধীদের বিচার এবং বিশেষ আদালত দ্বারা সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা নিশ্চিত করার জন্য।

 

ii) ফরেন এক্সচেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাক্ট ,1999 (FEMA):

বৈদেশিক মুদ্রা আইন ও প্রতিবিধানের সন্দেহজনক লাঙ্ঘনের তদন্ত পরিচালনা করার ,আইন লংঘন করলে অভিযুক্তদের বিচার ও জরিমানা আরোপ করার বাবস্থা করা হয়।

iii) COFEPOSA- এর অধীনে স্পন্সরিং এজেন্সি:

এই অধিদপ্তর FEMA এর লংঘন প্রতিরোধমূলক অ্যাক্টএর  স্পন্সর করার ক্ষমতা দেওয়া হয়।

iv) পলাতক অর্থনৈতিক অপরাধী আইন, 2018(FEOA):

পলাতক অপরাধীদের সম্পত্তি যুক্ত করতে বাধ্য করা হয়েছে, যারা গ্রেফতারের পরোয়ানা দিয়ে দেশের বাইরে পলায়ন করেছে এবং কেন্দ্রসরকর তাদের অর্থসম্পদ বাজেয়াপ্ত করে।

v) ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন অ্যাক্ট, 1973 (FERA):

এই আইন জারি করার কারণ দর্শানো বিজ্ঞপ্তির বিচার করা কর ফলে আরোপিত হতেপারে জরিমানা ও আদালত FERA  অধীনে প্রসিকিউশন চালানো।

ED কিভাবে হওয়া যায়?

i কাস্টম অফিসর ,

ii ইনকাম ট্যাক্স অফিসার,

iii IPS/IRS/IAS,

iv SSC CGL .

হেড কোয়ার্টার ,ব্রাঞ্চ  অফিস :

ED হেডকোয়ার্টার হল দিল্লিতে।

Regional Office (আঞ্ছলিক অফিস) – কলকাতা,মুম্বাই ,চেন্নাই ,চণ্ডীগড় ,দিল্লিতে ।

এছাড়াও এর 16 টা জেনারেল অফিস এবং 11 টা সাব -জেনারেল অফিস ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গায়  আছে ।